• আপডেট টাইম : 13/05/2024 08:39 PM
  • 70 বার পঠিত
  • শরীফুল ইসলাম,কুষ্টিয়া
  • sramikawaz.com

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে উপজেলা প্রশাসন কয়েক দফা অভিযান চালিয়েছে। তবে প্রশাসনের অভিযানের খবর পেয়ে অবৈধ বালু উত্তোলনকারীরা গা ঢাকা দেওয়ায় তাদের আটক করা সম্ভব হয়নি বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছেন।


জানাগেছে, উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের বৈরাগীরচর জুব্বারপাড়া গ্রামের মৃত ভাদু মন্ডলের ছেলে সাইদ মন্ডল ও তার দুই ভাই রিপন মন্ডল এবং মিঠু মন্ডলের নেতৃত্বে বৈরাগীরচর বাজারের নীচে মন্ডলপাড়া ঘাটে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ঘেষে পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে এমন সংবাদ পেয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ওবায়দুল্লাহর নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন সেখানে অভিযান চালায়। প্রশাসনের অভিযানের খবর পেয়ে বালু উত্তোলনকারী সন্ত্রাসী সাইদ ও তার লোকজন গা ঢাকা দেয়।


একইভাবে বৈরাগীরচর মোল্লাপাড়া ঘাটে বৈরাগীরচর এলাকার টগর মোল্লা, হেদায়েত মোল্লা, সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল লতিব পদ্মা নদী থেকে অবাঁধে বালু উত্তোলন করার খবর পেয়ে দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ফয়সাল আহমেদের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত শনিবার রাতে অভিযান চালায়। অভিযানের খবর পেয়ে বালু খেকোরা পালিয়ে যায়।


বালু উত্তোলন বন্ধে প্রশাসনের অভিযানের বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ওবায়দুল্লাহ বলেন, পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে সেখানে কয়েক দফা অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। তবে পদ্মায় গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গোপনে রাতের আঁধারে যারা পদ্মা নদী থেকে বালু উত্তোলন করছে তাদের গ্রেফতার পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।


উল্লেখ্য, অবৈধভাবে বালু ও মাটি কাটার ঘটনায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে কয়েকজনকে কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দেওয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...