• আপডেট টাইম : 08/06/2024 08:10 PM
  • 33 বার পঠিত
  • প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  • sramikawaz.com

অবিলম্বে সকল পোশাক শ্রমিকের পূর্ণ ঈদ বোনাস ও বকেয়া বেতন পরিশোধ দাবি জানিয়েছে গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ (জি-স্কপ)। পাশাপাশি শ্রমজীবীদের রেশন, আবাসন ও চিকিৎসার জন্য বিশেষ থোক বরাদ্দের দাবি জানায় সংগঠনটি। ৮ জুন শনিবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে সংগঠনটি এ দাবি জানায়।

গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের
(জি-স্কপ) যুগ্ম সমকারী নঈমুল আহসান জুয়েলের সভাপতিত্বে এবং খখালেকুজ্জামান লিপনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সোয়েটার ও গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ও জী-স্কপের যুগ্ম সম্বয়কারী
কাজী রুহুল আমিন, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের সাধারন সম্পাদক সেলিম মাহমুদ, গার্মেন্টস শ্রমিক জোটের সভাপতি আব্দুল
ওয়াহেদ, গার্মেন্টস শ্রমিক জোট বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের সাংগঠনিক সম্পাদক
সৌমিত্র কুমার দাস, শিরিন সিকদার, শাহানাজ আক্তার, আল আমিন হাওলাদার শ্রাবণ প্রমুখ।


সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ঈদের আর মাত্র ৯ দিন বাকি। এখনো অধিকাংশ কারখানা শ্রমিকদের ঈদ বোনাস পরিশোধ করেনি। অনেক কারখানা মালিক শ্রমিকদের আটকে রাখার কৌশল হিসাবে মে মাসের সম্পুর্ণ বেতন পরিশোধ করবেনা বলে
শোনা যাচ্ছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, এই ধরণের অপকৌশল শ্রমিকদেরকে উত্তেজিত করবে যার ফলাফল ভালো হবেনা।

তারা বলেন, নিত্যপণ্যের
উর্দ্ধমূল্যে শ্রমিকদের জীবন ওষ্ঠাগত। খাদ্য পণ্যে মূল্যস্ফীতি ১০ শতাংশের বেশি। পোষাক শ্রমিকরা তাদের মজুরি দিয়ে শুধুমাত্র পরিবারের খাবার খরচকেই পুর্ণ করতে পারছেনা। খাদ্য নিরাপত্তাহীনতায় অপুষ্টিতে ভুগছে। তাই ভর্তুকি মূল্যে রেশন
সরবরাহের দাবি করা হয়েছিল। কিন্তু শিল্পের সুষম বিকাশের জন্য শ্রমিকদের জীবনমানের উন্নয়নের প্রয়োজনিয়তা যেমন মালিকরা বুঝতে চাইনা, একইভাবে সরকারও বুঝতে পারছেন না বা দায়িত্ব অস্বী¯কার করতে চাচ্ছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...